۞ সুরা ৭৩۞ ‏المزمل‎ ۞ মুয্যাম্মিল ۞ বস্ত্রাচ্ছাদনকারী ۞ al-Muzammil ۞
  1. بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ

    বিছমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

    আল্লাহর নাম নিয়ে (আরম্ভ করছি)

    শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

    In the name of Allah, the Entirely Merciful, the Especially Merciful.

  2. بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ يَا أَيُّهَا الْمُزَّمِّلُ

    ইয়াআইয়ুহাল মুঝঝাম্মিল।

    হে বস্ত্রাচ্ছাদনকারী!

    হে বস্ত্রাবৃত!

    O you who wraps himself [in clothing],

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১
  3. قُمِ اللَّيْلَ إِلَّا قَلِيلًا

    কুমিল্লাইলা ইল্লা- কালীলা- ।

    তুমি উঠে দাঁড়াও রাতেরবেলা অল্পসময় ব্যতীত, --

    রাত্রিতে দন্ডায়মান হোন কিছু অংশ বাদ দিয়ে;

    Arise [to pray] the night, except for a little -

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ২
  4. نِصْفَهُ أَوِ انْقُصْ مِنْهُ قَلِيلًا

    নিসফাহূআবিনকু স মিনহু কালীলা- ।

    তার অর্ধেক, অথবা তার থেকে কিছুটা কমিয়ে নাও,

    অর্ধরাত্রি অথবা তদপেক্ষা কিছু কম

    Half of it - or subtract from it a little

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৩
  5. أَوْ زِدْ عَلَيْهِ وَرَتِّلِ الْقُرْآنَ تَرْتِيلًا

    আও ঝিদ ‘আলাইহি ওয়া রাত্তিলিল কুরআ-না তারতীলা- ।

    অথবা এর উপরে বাড়িয়ে নাও, আর কুরআন আবৃত্তি করো ধীরস্থিরভাবে শান্ত-সুন্দর আবৃত্তিতে।

    অথবা তদপেক্ষা বেশী এবং কোরআন আবৃত্তি করুন সুবিন্যস্ত ভাবে ও স্পষ্টভাবে।

    Or add to it, and recite the Qur''an with measured recitation.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৪
  6. إِنَّا سَنُلْقِي عَلَيْكَ قَوْلًا ثَقِيلًا

    ইন্না- ছানুলকী ‘আলাইকা কাওলান ছাকীলা-।

    নিঃসন্দেহ আমরা তোমার উপরে চাপাচ্ছি এক গুরুভার বাণী।

    আমি আপনার প্রতি অবতীর্ণ করেছি গুরুত্বপূর্ণ বাণী।

    Indeed, We will cast upon you a heavy word.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৫
  7. إِنَّ نَاشِئَةَ اللَّيْلِ هِيَ أَشَدُّ وَطْئًا وَأَقْوَمُ قِيلًا

    ইন্না না-শিআতাল্লাইলি হিয়া আশাদ্দুওয়াত‘আওঁ ওয়া আকওয়ামুকীলা-।

    নিঃসন্দেহ রাত-জেগে উপাসনা -- এ হচ্ছে বলিষ্ঠতম পদক্ষেপ ও সুসংস্থাপিত বক্তব্য।

    নিশ্চয় এবাদতের জন্যে রাত্রিতে উঠা প্রবৃত্তি দলনে সহায়ক এবং স্পষ্ট উচ্চারণের অনুকূল।

    Indeed, the hours of the night are more effective for concurrence [of heart and tongue] and more suitable for words.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৬
  8. إِنَّ لَكَ فِي النَّهَارِ سَبْحًا طَوِيلًا

    ইন্না লাকা ফিন্নাহা-রি ছাবহান তাবিলা- ।

    নিঃসন্দেহ তোমার জন্য দিনের বেলায় রয়েছে সুদীর্ঘ কর্মতৎপরতা।

    নিশ্চয় দিবাভাগে রয়েছে আপনার দীর্ঘ কর্মব্যস্ততা।

    Indeed, for you by day is prolonged occupation.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৭
  9. وَاذْكُرِ اسْمَ رَبِّكَ وَتَبَتَّلْ إِلَيْهِ تَبْتِيلًا

    ওয়াযকুরিছমা রাব্বিকা ওয়া তাবাত্তাল ইলাইহি তাবতীলা-।

    সুতরাং তোমার প্রভুর নাম কীর্তন করো এবং তাঁর প্রতি ধ্যানধারণায় মগ্ন হও একনিষ্ঠ ধ্যানে।

    আপনি আপনার পালনকর্তার নাম স্মরণ করুন এবং একাগ্রচিত্তে তাতে মগ্ন হোন।

    And remember the name of your Lord and devote yourself to Him with [complete] devotion.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৮
  10. رَبُّ الْمَشْرِقِ وَالْمَغْرِبِ لَا إِلَٰهَ إِلَّا هُوَ فَاتَّخِذْهُ وَكِيلًا

    রাব্বুল মাশরিকিওয়াল মাগরিবি লাইলা-হা ইল্লা-হুওয়া ফাত্তাখিযহু ওয়াকীলা- ।

    পূর্বাঞ্চল ও পশ্চিমাঞ্চলের প্রভু, তিনি ব্যতীত কোনো উপাস্য নেই, সুতরাং তাঁকেই কর্ণধাররূপে গ্রহণ করো।

    তিনি পূর্ব ও পশ্চিমের অধিকর্তা। তিনি ব্যতীত কোন উপাস্য নেই। অতএব, তাঁকেই গ্রহণ করুন কর্মবিধায়করূপে।

    [He is] the Lord of the East and the West; there is no deity except Him, so take Him as Disposer of [your] affairs.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ৯
  11. وَاصْبِرْ عَلَىٰ مَا يَقُولُونَ وَاهْجُرْهُمْ هَجْرًا جَمِيلًا

    ওয়াসবির ‘আলা-মা-ইয়াকূ লূনা ওয়াহজুরহুম হাজরান জামীলা- ।

    আর অধ্যবসায় চালিয়ে যাও তারা যা বলে তা সত্ত্বেও, আর তাদের পরিহার করে চলো সৌজন্যময় পরিহারে!

    কাফেররা যা বলে, তজ্জন্যে আপনি সবর করুন এবং সুন্দরভাবে তাদেরকে পরিহার করে চলুন।

    And be patient over what they say and avoid them with gracious avoidance.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১০
  12. وَذَرْنِي وَالْمُكَذِّبِينَ أُولِي النَّعْمَةِ وَمَهِّلْهُمْ قَلِيلًا

    ওয়া যারনী ওয়াল মুকাযযিবীনা উলিন না‘মাতি ওয়া মাহহিলহুম কালীলা- ।

    আর ছেড়ে দাও আমাকে এবং সত্যপ্রত্যাখ্যানকারীদের, বিলাস-সামগ্রীর অধিকারীদের, আর তাদের বিরাম দাও অল্পকাল।

    বিত্ত-বৈভবের অধিকারী মিথ্যারোপকারীদেরকে আমার হাতে ছেড়ে দিন এবং তাদেরকে কিছু অবকাশ দিন।

    And leave Me with [the matter of] the deniers, those of ease [in life], and allow them respite a little.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১১
  13. إِنَّ لَدَيْنَا أَنْكَالًا وَجَحِيمًا

    ইন্না লাদাইনাআনকা-লাওঁ ওয়া জাহীমা- ।

    নিঃসন্দেহ আমাদের কাছে আছে ভারী শিকল ও জ্বলন্ত আগুন,

    নিশ্চয় আমার কাছে আছে শিকল ও অগ্নিকুন্ড।

    Indeed, with Us [for them] are shackles and burning fire

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১২
  14. وَطَعَامًا ذَا غُصَّةٍ وَعَذَابًا أَلِيمًا

    ওয়া তা‘আ-মান যা-গুসসাতিওঁ ওয়া‘আযা-বান আলীমা- ।

    আর খাদ্য যা গলায় আটকে যায়, আর মর্মন্তুদ শাস্তি!

    গলগ্রহ হয়ে যায় এমন খাদ্য এবং যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি।

    And food that chokes and a painful punishment -

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১৩
  15. يَوْمَ تَرْجُفُ الْأَرْضُ وَالْجِبَالُ وَكَانَتِ الْجِبَالُ كَثِيبًا مَهِيلًا

    ইয়াওমা তারজুফুল আরদুওয়ালজিবা-লুওয়াকা-নাতিল জিবা-লুকাছীবাম মাহীলা-।

    সেইদিন পৃথিবী ও পাহাড়গুলো কেঁপে উঠবে, আর পাহাড়গুলো হয়ে যাবে স্তূপাকার বালির গাদা!

    যেদিন পৃথিবী পর্বতমালা প্রকম্পিত হবে এবং পর্বতসমূহ হয়ে যাবে বহমান বালুকাস্তুপ।

    On the Day the earth and the mountains will convulse and the mountains will become a heap of sand pouring down.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১৪
  16. إِنَّا أَرْسَلْنَا إِلَيْكُمْ رَسُولًا شَاهِدًا عَلَيْكُمْ كَمَا أَرْسَلْنَا إِلَىٰ فِرْعَوْنَ رَسُولًا

    ইন্নাআরছালনাইলাইকুম রাছূলান শা-হিদান ‘আলাইকুম কামাআরছালনাইলাফির‘আওনা রাছূলা-।

    নিঃসন্দেহ আমরা তোমাদের কাছে এজন রসূল পাঠিয়েছি, তোমাদের উপরে সাক্ষীরূপে, যেমন আমরা ফিরআউনের কাছে একজন রসূল পাঠিয়েছিলাম।

    আমি তোমাদের কাছে একজন রসূলকে তোমাদের জন্যে সাক্ষী করে প্রেরণ করেছি, যেমন প্রেরণ করেছিলাম ফেরাউনের কাছে একজন রসূল।

    Indeed, We have sent to you a Messenger as a witness upon you just as We sent to Pharaoh a messenger.

    পারা : ২৯ সুরা ৭৩ আয়াত ১৫
50%