۞ সুরা ৫৩۞ ‏النجم‎ ۞ নাজ্ম ۞ তারা, ۞ an-Najm ۞
  1. بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ

    বিছমিল্লাহির রাহমানির রাহিম।

    আল্লাহর নাম নিয়ে (আরম্ভ করছি)

    শুরু করছি আল্লাহর নামে যিনি পরম করুণাময়, অতি দয়ালু।

    In the name of Allah, the Entirely Merciful, the Especially Merciful.

  2. بِسْمِ اللَّهِ الرَّحْمَٰنِ الرَّحِيمِ وَالنَّجْمِ إِذَا هَوَىٰ

    ওয়ান্নাজমি ইযা-হাওয়া-।

    ভাবো তারকার কথা, যখন তা অস্ত যায়!

    নক্ষত্রের কসম, যখন অস্তমিত হয়।

    By the star when it descends,

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১
  3. مَا ضَلَّ صَاحِبُكُمْ وَمَا غَوَىٰ

    মা-দাল্লা সা-হিবুকুম ওয়ামা-গাওয়া-।

    তোমাদের সঙ্গী দোষ-ত্রুটি করেন না, আর তিনি বিপথেও যান না,

    তোমাদের সংগী পথভ্রষ্ট হননি এবং বিপথগামীও হননি।

    Your companion [Muhammad] has not strayed, nor has he erred,

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ২
  4. وَمَا يَنْطِقُ عَنِ الْهَوَىٰ

    ওয়ামা-ইয়ানতিকু‘আনিল হাওয়া-।

    আর তিনি ইচ্ছামত কোনো কথা বলেন না।

    এবং প্রবৃত্তির তাড়নায় কথা বলেন না।

    Nor does he speak from [his own] inclination.

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৩
  5. إِنْ هُوَ إِلَّا وَحْيٌ يُوحَىٰ

    ইন হুওয়া ইল্লা-ওয়াহইঊ ইয়ূহা-।

    এইখানা প্রত্যাদিষ্ট হওয়া প্রত্যাদেশবাণী বৈ তো নয়, --

    কোরআন ওহী, যা প্রত্যাদেশ হয়।

    It is not but a revelation revealed,

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৪
  6. عَلَّمَهُ شَدِيدُ الْقُوَىٰ

    ‘আল্লামাহূশাদীদুল কুওয়া-।

    তাঁকে শিখিয়েছেন বিরাট শক্তিমান --

    তাঁকে শিক্ষা দান করে এক শক্তিশালী ফেরেশতা,

    Taught to him by one intense in strength -

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৫
  7. ذُو مِرَّةٍ فَاسْتَوَىٰ

    যূ মিররাতিন ফাছতাওয়া

    বলবীর্যের অধিকারী। কাজেই তিনি পরিপূর্ণতায় পৌঁছলেন।

    সহজাত শক্তিসম্পন্ন, সে নিজ আকৃতিতে প্রকাশ পেল।

    One of soundness. And he rose to [his] true form

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৬
  8. وَهُوَ بِالْأُفُقِ الْأَعْلَىٰ

    ওয়া হুওয়া বিলউফুকিল আ‘লা-।

    আর তিনি রয়েছেন ঊর্ধ্ব দিগন্তে।

    উর্ধ্ব দিগন্তে,

    While he was in the higher [part of the] horizon.

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৭
  9. ثُمَّ دَنَا فَتَدَلَّىٰ

    ছু ম্মা দানা-ফাতাদাল্লা-।

    তারপর তিনি সন্নিকটে এলেন, অতঃপর তিনি অবনত করলেন,

    অতঃপর নিকটবর্তী হল ও ঝুলে গেল।

    Then he approached and descended

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৮
  10. فَكَانَ قَابَ قَوْسَيْنِ أَوْ أَدْنَىٰ

    ফাকা-না কা-বা কাওছাইনি আও আদনা-।

    তখন তিনি দুই ধনুকের ব্যবধানে রইলেন, অথবা আরও কাছে।

    তখন দুই ধনুকের ব্যবধান ছিল অথবা আরও কম।

    And was at a distance of two bow lengths or nearer.

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ৯
  11. فَأَوْحَىٰ إِلَىٰ عَبْدِهِ مَا أَوْحَىٰ

    ফাআওহাইলা-‘আবদিহী মাআওহা-।

    তখন তিনি তাঁর বান্দার কাছে প্রত্যাদেশ করলেন যা তিনি প্রত্যাদেশ করেন।

    তখন আল্লাহ তাঁর দাসের প্রতি যা প্রত্যাদেশ করবার, তা প্রত্যাদেশ করলেন।

    And he revealed to His Servant what he revealed.

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১০
  12. مَا كَذَبَ الْفُؤَادُ مَا رَأَىٰ

    মা-কাযাবাল ফুআ-দুমা-রাআ-।

    হৃদয় অস্বীকার করে নি যা তিনি দেখেছিলেন তাতে।

    রসূলের অন্তর মিথ্যা বলেনি যা সে দেখেছে।

    The heart did not lie [about] what it saw.

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১১
  13. أَفَتُمَارُونَهُ عَلَىٰ مَا يَرَىٰ

    আফাতুমা-রূনাহূ‘আলা-মা-ইয়ারা-।

    তোমরা কি তবে তাঁর সঙ্গে বিতর্ক করবে যা তিনি দেখেছেন সে-সন্বন্ধে?

    তোমরা কি বিষয়ে বিতর্ক করবে যা সে দেখেছে?

    So will you dispute with him over what he saw?

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১২
  14. وَلَقَدْ رَآهُ نَزْلَةً أُخْرَىٰ

    ওয়া লাকাদ রাআ-হু নাঝলাতান উখরা-।

    আর তিনি নিশ্চয়ই তাঁকে দেখেছিলেন অন্য এক অবতরণে --

    নিশ্চয় সে তাকে আরেকবার দেখেছিল,

    And he certainly saw him in another descent

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১৩
  15. عِنْدَ سِدْرَةِ الْمُنْتَهَىٰ

    ‘ইনদা ছিদ রাতিল মুনতাহা-।

    দূরদিগন্তের সিদরাহ্‌-গাছের কাছে,

    সিদরাতুলমুন্তাহার নিকটে,

    At the Lote Tree of the Utmost Boundary -

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১৪
  16. عِنْدَهَا جَنَّةُ الْمَأْوَىٰ

    ‘ইনদাহা-জান্নাতুল মা’ওয়া-।

    তার কাছে আছে চির-উপভোগ্য উদ্যান।

    যার কাছে অবস্থিত বসবাসের জান্নাত।

    Near it is the Garden of Refuge -

    পারা : ২৭ সুরা ৫৩ আয়াত ১৫
20%